ঠাকুরগাঁওয়ে তিনদিনেও সন্ধান মেলেনি স্কুলছাত্রী শিলার

ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুলে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হয়ে নিখোঁজ হয়েছে সানজিদা আক্তার শিলা (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রী। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) বাসা থেকে বের হয়ে সে নিখোঁজ হয়। এরপর তিনদিনেও সন্ধান পাওয়া যায়নি মেয়েটির।

শিলা ঠাকুরগাঁও আমানতুল্লাহ ইসলামি একাডেমি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে শিশুটির পরিবার।

নিখোঁজের তিনদিনেও শিলার খোঁজ না মিললেও খরচের ভয়ে মেয়েটির বাবা তেমন কোনো তদারকি করছেন না বলে অভিযোগ করেছেন নানি মালেকা খাতুন। তিনি জানান, অসহায় মেয়েটি জন্মের কয়েক বছর তার বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হয়। এরপর দুজনই অন্যত্র বিয়ে করেন। তখন থেকে নানির কাছে থেকেই বড় হয়েছে শিলা।

মালেকা খাতুন বলেন, স্কুল থেকে দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৩টার মধ্যে ফেরার কথা থাকলেও শিলা ফিরে না আসায় খোঁজ নিতে স্কুলে যান তিনি। স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানায় সে স্কুলে গিয়েছিল। তবে স্কুলের হাজিরা খাতায় উপস্থিতি ছিল না। পরে অনেক খোঁজ করেও না পাওয়ায় থানায় জিডি করেন তিনি।

আমানতুল্লাহ স্কুলের প্রধান শিক্ষক শামসুল ইসলাম বলেন, মেয়েটির নানি স্কুলে এসে নিখোঁজের বিষয়টি জানিয়েছিলেন। আমি খোঁজ নিয়েছি। হাজিরা খাতায় মেয়েটির উপস্থিতি নেই। আবার কয়েকজন ছাত্রছাত্রী সেদিন তাকে স্কুলে দেখেছে বলে জানিয়েছে। বোঝা যাচ্ছে ক্লাস শুরু হওয়ার আগেই স্কুল থেকে চলে গেছে মেয়েটি। হয়তো কারো প্রলোভনে পরে কোথাও গেছে। স্কুল থেকে কেউ উঠিয়ে নিয়ে গেছে মনে হচ্ছে না।

শিলার নানি মালেকা খাতুন বলেন, ‘আমার নাতনি একজন শিশু বাচ্চা। হয়তো কোনো দুর্বৃত্ত তাকে তুলে নিয়ে গেছে। এতিম অবস্থায় পালিত হওয়া অসহায় মেয়েটিকে আমি ফিরে চাই।’

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম বলেন, সানজিদা আক্তার শিলা নামের মেয়েটির নিখোঁজের ঘটনায় থানায় একটি জিডি হয়েছে। তার খোঁজ চলছে। আশা করি দ্রুতই খুঁজে পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *