স্কুলছাত্রীকে খুন করে পুকুরে ফেলার অভিযোগ

স্কুলছাত্রীকে খুন করে পুকুরে ফেলার অভিযোগ

0
SHARE

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে সাদিয়া সামাদ লিসা নামে এক ছাত্রীকে অপহরণের পর হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে একটি পুকুর থেকে ওই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত লিসা আটোয়ারী উপজেলা সদরের ছোটদাপ এলাকার আব্দুস সামাদের মেয়ে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আকাশ ও মুন্না নামে দুই কিশোরকে আটক করা হয়েছে।

নিহতের পরিবার জানায়, লিসা আটোয়ারী পাইলট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণীতে পড়তো। প্রতিবেশী সহপাঠী সাদ তাকে প্রায়ই প্রেমের প্রস্তাব দিত। এতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে একাধিকবার তাকে হুমকি দেয় সাদ।

স্থানীয় আরেকটি সূত্র জানায়, লিসার সঙ্গে আকাশ নামে ওই কিশোরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে সম্প্রতি সাদ ও আকাশের মধ্যে মারধরের ঘটনাও ঘটে। মারধরে আহত সাদ বৃহস্পতিবার দুপুরে লিসার বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের জানায়, লিসার জন্য তার এ অবস্থা হয়েছে। এ সময় লিসাকে ‘একটা কিছু’ করার হুমকি দেয় সাদ। এরপর সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় লিসা।

লিসার বড় বোন আশা বলেন, ‘সাদ সব সময় আমার বোনকে উত্ত্যক্ত করত। প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হলে তাকে হত্যার হুমকি দিয়েছিল। লিসাকে নিয়ে সাদ ও তার বন্ধু আকাশের মধ্যে মারধর হয়। এ নিয়ে সে আমার বোনের কিছু একটা করার হুমকি দিয়েছিল। সন্ধ্যায় সে-ই আমার বোনকে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দিয়েছে। আমরা এর উপযুক্ত বিচার চাই।’

আটোয়ারী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমরা মেয়েটি নিখোঁজের খবর পাই। সকালে পুকুরে তার লাশ পাওয়া গেছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দু’জনকে আটক করা হয়েছে।

print