এরশাদের কবরে আজমীর শরিফের গিলাফ দিয়ে ঢেকে দেয়া হলো 

এরশাদের কবরে আজমীর শরিফের গিলাফ দিয়ে ঢেকে দেয়া হলো

SHARE

নিউজ ডেস্ক:

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, সাবেক রাষ্ট্রপতি মরহুম হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সমাধি চত্বরের কবর জিয়ারত করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা।

সোমবার দুপুরে পল্লী নিবাসে এরশাদের কবর জিয়ারত, ফাতেহা পাঠ, দোয়া ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা। পরে আজমীর শরীফ থেকে আনা গিলাফ দিয়ে ঢেকে দেয়া হয় এরশাদের সমাধি।

মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় ৩০ টি মাইক্রোবাস যোগে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এবং এর ২৬ টি থানার ব্যানার নিয়ে নেতাকর্মীরা এসে পৌঁছান রংপুর মহানগরীর দর্শনার পল্লী নিবাসে এরশাদের সমাধি চত্বরে এসে পৌঁছান। পরে সেখানে তারা সাবেক এ রাষ্ট্রপতির নির্মাণাধীন বাড়ি পরিদর্শন শেষে তার কবরের পাশে ফাতেহা পাঠ শেষে কবর জিয়ারত করেন। এর আগে উত্তর সিটি করপোরেশন এবং ২৬টি থানার নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথকভাবে সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

পরে এরশাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মোনাজাত করেন নেতাকর্মীরা। মোনাজাত পরিচালনা করেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও রংপুর জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাফিউল ইসলাম শাফী।

এসময় এরশাদের চাচাতো ভাই ও হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের পরিচালক শামসুজ্জামান মুকুল, প্রেসিডিয়াম সদস্য ঢাকা উত্তর মহানগর জাতীয় পার্টি সভাপতি ফয়সাল চিশতী, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সেন্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও রংপুর মহানগর সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজি আব্দুর রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও রংপুর জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাফিউল ইসলাম শাফী, কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মুনশি আব্দুল বারী, জেলা সহ সভাপতি আজমল হোসেন লেবু, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক জাহিদ হোসেন লুসিড, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুব সংহতির সেক্রেটারী হাসানুজ্জামান নাজিম, ঢাকা উত্তর মহানগরীরর ২৬ টি থানার সভাপতি ও সেক্রেটারীসহ ঢাকা এবং স্থানীয় জাতীয় পার্টি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতার্কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ফাতিহা পাঠ, জিয়ারত ও দোয়া শেষে ঢাকা উত্তর মহানগরীর নেতাকর্মীরা এ সময় আজমির শরীফ থেকে আনা গিলাফ দিয়ে কবর ঢেকে দেন।

এর আগে সেখানে এরশাদের স্মরণে একটি শোক বই উম্মোচন করা হয়। শোক বইটি জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাকের সৌজন্যে এরশাদের চাচাতো ভাই হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের পরিচালক শামসুজ্জামান মুকুলের হাতে হস্তান্তর করা হয়।

প্রসঙ্গত : গত ১৪ জুলাই রাজধানীর সিএমইচএ মারা যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। নজীরবিহীন আন্দোলনের মুখে ১৬ জুলাই তার ওছিয়তকৃত রংপুরের পল্লীনিবাসের লিচুবাগান তলায় তাকে সমাহিত করা হয়। এরপর প্রতিদিনই রংপুর বিভাগ এবং দেশের বিভিন্নস্থান থেকে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ এসে তার কবর জিয়ারত করছেন।

print