মঙ্গলবার   ১৬ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ৩১ ১৪২৯   ১৭ মুহররম ১৪৪৪

অনির্বাচিত ব্যক্তিকে জেলা পরিষদের প্রশাসক নিয়োগ না করতে রুল

প্রকাশিত : ০৭:১৬ পিএম, ২৭ এপ্রিল ২০২২ বুধবার

কোনো সরকারি কর্মকর্তাকে (অনির্বাচিত ব্যক্তিকে) প্রশাসক নিয়োগ সংক্রান্ত জারি করা প্রজ্ঞাপন কেন বাতিল ও অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। জেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হলে পরবর্তী পরিষদ গঠন না হওয়া পর্যন্ত অনির্বাচিত ব্যক্তিকে প্রশাসক নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে এ রুল জারি করা হয়েছে।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, জনপ্রসাশন সচিব, আইন সচিব ও জেলা পরিষদ শাখার উপসিচবকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।


এ বিষয়ে করা এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বুধবার (২৭ এপ্রিল) হাইকোর্টের বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রুল জারির বিষয়ে  নিশ্চিত করেন রিট আবেদনকারীর আইনজীবী মোহাম্মাদ বাকির উদ্দিন ভূঁইয়া।

আদালতে আজ রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন মোহাম্মাদ বাকির উদ্দিন ভূঁইয়া। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ রাসেল চৌধুরী। এর আগে গত ২৪ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট আবেদন দায়ের করেন ব্রাহ্মবাড়িয়া জেলা পরিষদের ৫নং (সদর থানা) ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য ও বাংলাদেশ জেলা পরিষদ মেম্বার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. বাবুল মিয়া।

এদিন পিরোজপুরের ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. নাসির উদ্দিন হাওলাদার ও পঞ্চগর জেলা পরিষদের সদস্য মো. হারুন অর রশিদও আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রিটে বিবাদী করা হয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, জনপ্রশাসন সচিব, আইন সচিব ও জেলা পরিষদ শাখার উপসিচবকে।


আইনজীবী বাকির উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, সরকার গত ১৭ এপ্রিল জেলা পরিষদের ক্ষমতা হস্তারের বিষয়ে যে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে তা সংবিধানের ৭, ১১, ২৬, ২৭, ৩১, ৪০, ৫৯ এবং ৬০ এই অনুচ্ছেদের পরিপন্থি। এ বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে আমরা রিট করেছি। শুনানি শেষে আদালত এ আদেশ দেন।

এর আগ গত ১৭ এপ্রিল সরকার এ বিষয়ে একটি গেজেটে উল্লেখ করে, জেলা পরিষদ গঠিত না হওয়া পর্যন্ত সরকার কর্তৃক নিযুক্ত একজন প্রশাসক জেলা পরিষদের কার্যাবলি সম্পাদন করবেন। সরকার একজন উপযুক্ত ব্যক্তিকে বা প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিযুক্ত কোনো কর্মকর্তাকে প্রশাসক নিয়োগ দিতে পারবে। তবে সেই মেয়াদ একের অধিকবার বা ১৮০ দিনের বেশি হবে না।