ব্রেকিং:
ঘন কুয়া ও শৈত্য প্রবাহে লালমনিরহাটের জনজীবন স্থবির নেই ঢাকায় আসছে মেসির আর্জেন্টিনা

মঙ্গলবার   ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩   মাঘ ২৫ ১৪২৯   ১৬ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
পাটগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আসামী পলাতক সরকারি খরচে সাত বছরে হজে গেছেন ১৯১৮ জন বিশ্ব ইজতেমায় লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায় শীত আরও বাড়তে পারে বিয়েবাড়িতে চাঁদাবাজি: তৃতীয় লিঙ্গের চারজন কারাগারে
১৮৭

অপু বিশ্বাস নীলফামারীতে

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০২২  

ঢালিউড কুইন খ্যাত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। চলচ্চিত্রের পর্দায় অভিনয়ে যেমন দর্শক মুগ্ধ করেন তেমনি মঞ্চেও হাজার হাজার ভক্তের মন মাতাচ্ছেন এই চিত্রনায়িকা।

 

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) রাতে নীলফামারীর জলঢাকা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে উপজেলা পরিষদ আয়োজিত কনসার্টে চলচ্চিত্রের গানে পারফর্ম করেন তিনি। একই মঞ্চে গান গেয়েছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আঁখি আলমগীর ও সুলতানা ইয়াসমিন লায়লা।

 

কনসার্টে নীলফামারীর হাজার হাজার দর্শকের মন মাতিয়েছেন অপু। তার নাচের তালে নেচেছেন হাজারো দর্শক। আলোচিত এ চিত্রনায়িকাকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত দর্শকরা। একনজর দেখতে অনুষ্ঠানস্থলে ভিড় করেন অপুভক্তরা। লাল, নীল আলোয় আলোকিত মঞ্চে অপু ও তার দল চমকে দেন সবাইকে। একই মঞ্চে গানের তালে দর্শকদের মন মাতিয়েছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আঁখি আলমগীর, সুলতানা ইয়াসমিন লায়লা ও নীলফামারীর মমতাজ খ্যাত কণ্ঠশিল্পী সুমি।

নীলফামারীতে ভক্তদের মাতালেন অপু বিশ্বাস

এর আগে জলঢাকা উপজেলা পরিষদের আয়োজনে নীলফামারী জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মমতাজুল হককে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়। এতে উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুরের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহীদ হোসেন রুবেলের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী ও নীলফামারী-২ আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর।

নীলফামারীতে ভক্তদের মাতালেন অপু বিশ্বাস

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, জলঢাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম, জলঢাকা পৌরসভার মেয়র ইলিয়াস হোসেন বাবলু, জলঢাকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবির, ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম পাশা এলিচ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনোয়ারা বেগম, উপজেলার সব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কাউন্সিলর, মেম্বার অ্যাসোসিয়শনের সদস্যরা।

 

এদিকে কনসার্ট ঘিরে কয়েক দিন আগে থেকেই প্রস্তুতি গ্রহণ নেয় উপজেলা পরিষদ। জলঢাকা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে প্রস্তুত করা হয় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের মঞ্চ ও আলাদা করে কনসার্টের স্টেজ। এছাড়া অনুষ্ঠানকে ঘিরে বাড়ানো হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ৷ যেকোনো বিশৃঙ্খলা এড়াতে বাড়ানো হয় গোয়েন্দা নজরদারি। এছাড়াও সাদা পোশাকে পুলিশসহ দায়িত্ব পালন করেন আনসার সদস্য ও গ্রাম পুলিশের সদস্যরা।

 

জলঢাকা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবীর বলেন, কনসার্ট ঘিরে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে পুলিশ দায়িত্ব পালন করেন। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই অনুষ্ঠান সুন্দরভাবে শেষ হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর