ব্রেকিং:
ঘন কুয়া ও শৈত্য প্রবাহে লালমনিরহাটের জনজীবন স্থবির নেই ঢাকায় আসছে মেসির আর্জেন্টিনা

মঙ্গলবার   ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩   মাঘ ২৫ ১৪২৯   ১৬ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
পাটগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আসামী পলাতক সরকারি খরচে সাত বছরে হজে গেছেন ১৯১৮ জন বিশ্ব ইজতেমায় লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায় শীত আরও বাড়তে পারে বিয়েবাড়িতে চাঁদাবাজি: তৃতীয় লিঙ্গের চারজন কারাগারে
২৮১

রংপুর সিটি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালো জামায়াত

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২২  

বিএনপির পর এবার রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার ঘোষণা দিয়েছে জামায়াত।

দীর্ঘদিন ধরে মাঠে প্রচার-প্রচারণা চালালেও শেষ মুহূর্তে এসে নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দলটির রংপুর মহানগর শাখার সাবেক আমির মাহবুবুর রহমান বেলাল। ফলে বিএনপি ও জামায়াত ছাড়াই এবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রংপুর সিটি নির্বাচন।


নির্বাচন কমিশনে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল হওয়ায় দলটির পক্ষে দলীয় প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ নেই। ফলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটে অংশ নিতে গণসংযোগ চালাচ্ছিলেন অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বেলাল। তার পক্ষে নগরজুড়ে বিলি করা হয়েছে হাজার হাজার লিফলেট। ছাপানো হয় পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন। বাড়ি বাড়ি জামায়াতে ইসলামীর নারী সংগঠকরা ভোট প্রার্থনা করে লিফলেটও বিলি করেছেন। প্রচারণার অংশ হিসেবে বিভিন্ন মসজিদে নামাজ আদায়ের পর সমর্থনও চেয়েছেন বেলাল। তবে শেষ পর্যায়ে এসে তিনি অংশগ্রহণ না করার ঘোষণা দেওয়ায় নতুন মেরুকরণ শুরু হয়েছে এই নির্বাচন ঘিরে।

নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার বিষয়টি মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সকালে জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রচারণায় অংশ নেওয়া রংপুর মহানগর জামায়াতের সাবেক আমির মাহবুবুর রহমান বেলাল।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না, এ কারণে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা সঠিক হবে না। তাই নির্বাচনে অংশ গ্রহণের লক্ষ্যে প্রচার-প্রচারণা চালানোসহ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হলেও তা থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

রংপুর সিটি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালো জামায়াত

মাহবুবুর রহমান আরও বলেন, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজনে কমিশনেরও কোনো ক্ষমতা নেই। নির্বাচন কমিশন সরকারের নির্দেশে চলে। তাই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীন ছাড়া নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না।

এদিকে, তফসিল ঘোষণার আগেই নির্বাচন থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। এর আগে দুই মেয়াদে বিএনপি অংশ নিলেও এবার নিচ্ছে না। প্রথমবারের মতো জামায়াত অংশ নেওয়ার ঘোষণা দিলেও শেষ মুহূর্তে এসে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলো।

 

রংপুর সিটি নির্বাচনে এখন পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন জাতীয় পার্টি মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের প্রার্থী শাফিয়ার রহমান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী আমিরুজ্জামান পিয়াল, খেলাফত মজলিশের প্রার্থী তৌহিদুর রহমান মণ্ডল রাজু, জাকের পার্টির খোরশেদ আলম। এছাড়া স্বতন্ত্র পদে লড়তে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন ইঞ্জিনিয়ার লতিফুর রহমান মিলন, মেহেদী হাসান বনি ও আবু রায়হান, জাতীয় শ্রমিক লীগের রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ এবং স্বেচ্ছাসেবক লীগের মহানগর সভাপতি আতাউর জামান বাবু।

 

মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। শেষ পর্যন্ত কারা মনোনয়ন জমা দিচ্ছেন তা জানতে অপেক্ষা আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা।

এই বিভাগের আরো খবর