ব্রেকিং:
২০ ডিসেম্বর থেকে দেওয়া হবে করোনা টিকার চতুর্থ ডোজ আড়াই বছর পর চালু হলো কুড়িগ্রামের বর্ডার হাট

বুধবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০২২   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯   ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
কুড়িগ্রামে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু আজ ৬ ডিসেম্বর লালমনিরহাট হানাদার মুক্ত দিবস গোলরক্ষকের বীরত্বে জাপানকে টাইব্রেকারে হারিয়ে কোয়ার্টারে ক্রোয়েশি ব্রাজিলের শেষ আটে ওঠার লড়াইয়ে আজ সামনে দক্ষিণ কোরিয়া কেউ আমার লাশ পাইলে ফোন দিয়েন
১৩২

হাফেজ তাকরিমকে সংবর্ধনা দেবে এলাকাবাসী

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২  

সৌদি আরবের পবিত্র মক্কায়  ৪২তম বাদশাহ আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় ১১১ দেশের ১৫৩ হাফেজের মধ্যে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিম (১৪)।

 

আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় দেশের গৌরব বয়ে আনায় দেশবাসীসহ তাকরিমের এলাকাবাসীও অত্যন্ত আনন্দিত। তাকে সম্মাননা এবং সংবর্ধনা দেওয়ার অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন স্থানীয়রা। উপজেলা প্রশাসন জানাবে বিশেষ শুভেচ্ছা।


হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিমের বাড়ি টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ভাদ্রা গ্রামে। তার বাবা হাফেজ আব্দুর রহমান স্থানীয় দারুল উলুম মাদরাসার শিক্ষক এবং মা গৃহিণী। ছোটবেলা থেকে তাকরিম তার বাবার কাছে হিফজ শিখেছেন। তারপর তাকে মিরপুরের হিফজ খানায় ভর্তি করা হয়। সেখানে থেকেই তিনি বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে ধারাবাহিক সাফল্য অর্জন করছেন।  

এ দিকে বিজয়ের খবর ছড়িয়ে পড়া মাত্রই তাকরিমকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন দেশ ও বিদেশের মানুষ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাকরিমের ছবি দিয়ে শুভেচ্ছা দিচ্ছেন সবস্থরের মানুষ। তৃতীয় স্থান অর্জন করার পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন এক লাখ রিয়াল (প্রায় সাড়ে ২৭ লাখ টাকা) সঙ্গে সনদ ও সম্মাননা।

তাকরিমের বাবা আব্দুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, আমার চার ছেলেমেয়ের মধ্যে তাকরিম দ্বিতীয়। বাবা হিসেবে সন্তানের এ সফলতায় আমি গর্বিত। এর আগেও কোরআন প্রতিযোগিতায় তাকরিম ইরানে প্রথম, লিবিয়ায় সপ্তম এবং বাংলাদেশে প্রথম স্থান অর্জন করেছে। আগামী দিনেও দেশের জন্য সে আরো সাফল্য বয়ে আনবে তার জন্য সবার কাছে দোয়া চাই। আগামী মঙ্গলবার তাকরিমের গ্রামে আসার কথা রয়েছে।   

নাগরপুরের ভাদ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী বলেন, তাকরিম শুধু নাগরপুর উপজেলা বা টাঙ্গাইল জেলার নয় পুরো দেশের গৌরব। আমরা অনেক ভাগ্যবান, আমাদের ইউনিয়নে এ ছেলের জন্ম হয়েছে। তার এ অর্জনে আমরা এলাকাবাসী খুবই আনন্দিত। তাকরিমের বাবাও হাফেজ। তাকরিমের মা খুবই পর্দাশীল নারী। আমরা তাকরিমকে সম্মান জানাবো এবং পরিবারের পাশে আছি।

 

নাগরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদুজ্জামান কালের কণ্ঠকে বলেন, হাফেজ তাকরিমের এ কৃতিত্ব খুবই গৌরবের। তিনি গ্রামের বাড়িতে আসলে উপজেলা প্রশাসন এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে। তার যে কোন সহযোগিতায় আমরা সচেষ্ট থাকবো। ভবিষতে আরো সফলতা কামনা করছি।

এই বিভাগের আরো খবর