ব্রেকিং:
ঘন কুয়া ও শৈত্য প্রবাহে লালমনিরহাটের জনজীবন স্থবির নেই ঢাকায় আসছে মেসির আর্জেন্টিনা

মঙ্গলবার   ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩   মাঘ ২৫ ১৪২৯   ১৬ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
পাটগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আসামী পলাতক সরকারি খরচে সাত বছরে হজে গেছেন ১৯১৮ জন বিশ্ব ইজতেমায় লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায় শীত আরও বাড়তে পারে বিয়েবাড়িতে চাঁদাবাজি: তৃতীয় লিঙ্গের চারজন কারাগারে
১২৮

লালমনিরহাটে আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল সমর্থকের মধ্যে সংঘর্ষ আহত ১০

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২২  

লালমনিরহাট সদর উপজেলায় আর্জেন্টিনার ব্যানার চুরি করা কে কেন্দ্র করে  ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা সমর্থকের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় গ্রুপের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে লালমিরহাট সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ রমজান আলী  সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় চারজন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তাদেরকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। 

এর আগে শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের সামুটারি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

 

লালমনির সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন আখলাত (১৯) কফি আনান(২১)ও মুজিবুল (২২)। 

 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের পতাকা চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েক দিন ধরে দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে  কথা কাটাকাটির ঘটনা চলছিল। শনিবার সন্ধ্যায় আর্জেন্টিনার সমর্থক আব্দুল্লাহ আল মামুনের ব্রাজিলের সমর্থক কফি আনানের ওপর পতাকা চুরির অভিযোগ তুলে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ঘটনা ঘটে। এর পর শনিবার মধ্যরাতে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল  সমর্থকদের মধ্যে আবারও তুমুল সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে দুই পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছে । এ সময় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করান।

 

এদিকে  সদর উপজেলার উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সুজন খবর পেয়ে আহত উভয় দলের সমর্থকদের দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান। 

 

আহত আখলাক (২০) এর বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক  বলেন, এ ঘটনায় আমার ছেলেকে যারা অন্যায় ভাবে পিটিয়ে আহত করেছেন তাদের বিচার চাই। এ বিষয়ে আমি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব। 

 

সদর হাসপাতালে ভর্তি কফি আনান (২১) বলেন, আর্জেন্টিনার সমর্থকরা পতাকার চুরির মিথ্যা অভিযোগ এনে আমাকে ডেকে অন্যায় ভাবে পিটিয়েছে।  কোথাকার চুরির বিষয়ে আমরা কিছুই জানি না। 

 

লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদ আলম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মূলত পতাকা চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনা স্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। ঘটনায় কেউ  থানায় অভিযোগ করেননি। 

এই বিভাগের আরো খবর