শুক্রবার   ০১ জুলাই ২০২২   আষাঢ় ১৬ ১৪২৯   ০১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

সর্বশেষ:
উঁকি দিয়েছে চাঁদ, ঈদুল আজহা ১০ জুলাই তিস্তা ও ধরলার পানি কমলেও বেড়েছে দুর্ভোগ তিস্তা ও সানিয়াজান নদীর পানি বৃদ্ধি,৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি বিপৎসীমার ওপরে ধরলা-দুধকুমারের পানি সৌদি আরবে ঈদুল আজহা ৯ জুলাই চাকরির একমাত্র বিকল্প শিক্ষিত বেকারদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলা
৩৭৭

হাতীবান্ধায় বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসার শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১৭ মে ২০২২  

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার দক্ষিণ পারুলিয়ায় মাদ্রাসা শিক্ষক কর্তৃক শিশুকে  বলাৎকার ও যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১৬মে) রাত দশটার দিকে  হাতীবান্ধা উপজেলার দক্ষিণ পারুলিয়া এলাকার বটতলা হাফেজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক গোলাম রব্বানী ( ৪০)কে আটক করেন।

মঙ্গলবার( ১৭মে) দুপুরে আটককৃত মাদ্রাসার শিক্ষক গোলাম রব্বানীকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন হাতীবান্ধা থানার অফিসার ইনচার্জ এরশাদুল আলম।

আটক মাদ্রাসার শিক্ষক গোলাম রব্বানী দক্ষিণ পারুলিয়া এলাকার আব্দুল হকের ছেলে ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পারুলিয়া বটতলা হাফেজিয়া  মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীকে রোববার রাতে বলাৎকার ও যৌন নির্যাতন চালায় মাদ্রাসার শিক্ষক গোলাম রব্বানী। এক পর্যায়ে ওই শিক্ষার্থী চিল্লাচিল্লি শুরু করলে তার মুখ চেপে ধরে ভয়ভীতি দেখায় ওই শিক্ষক। পরে সোমবার সকালে শিশুটি তার বাড়িতে গিয়ে পরিবারের কাছে ঘটনাটি খুলে বললে শিশুটির বড় ভাই সিরাজুল ইসলাম  যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনে হাতীবান্ধা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ পেয়ে  হাতীবান্ধা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সোমবার রাত দশটার দিকে গোলাম রব্বানীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। 

নির্যাতনের শিকার শিশুটি হাতীবান্ধা উপজেলার পশ্চিম বেজগ্রাম এলাকার মোঃ শফিকুল ইসলামের ছেলে।
 

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ এরশাদুল আলম  বলেন, শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে যৌন নির্যাতনের একটি অভিযোগ দায়ের করলে আমরা ওই মাদ্রাসার শিক্ষককে গ্রেপ্তার করি।  

এই বিভাগের আরো খবর