ব্রেকিং:
২০ ডিসেম্বর থেকে দেওয়া হবে করোনা টিকার চতুর্থ ডোজ আড়াই বছর পর চালু হলো কুড়িগ্রামের বর্ডার হাট

বুধবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০২২   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯   ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
কুড়িগ্রামে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু আজ ৬ ডিসেম্বর লালমনিরহাট হানাদার মুক্ত দিবস গোলরক্ষকের বীরত্বে জাপানকে টাইব্রেকারে হারিয়ে কোয়ার্টারে ক্রোয়েশি ব্রাজিলের শেষ আটে ওঠার লড়াইয়ে আজ সামনে দক্ষিণ কোরিয়া কেউ আমার লাশ পাইলে ফোন দিয়েন
৮৬২

রংপুরে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় ২০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: ২৩ নভেম্বর ২০২২  

রংপুরে বিক্ষোভ মিছিলে লাঠিচার্জ করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় ২০০ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। এতে জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান লাকুর নাম উল্লেখে করে ২০০ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে।

 

বুধবার (২৩ নভেম্বর) সন্ধ্যায় মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী।

 


বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা, পুলিশের ওপর হামলা করাসহ বেশ কিছু অভিযোগ এনে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম এ মামলাটি করেন।

 

এদিকে ঘটনার দিন বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত না থেকেও মামলার আসামি হওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম। তিনি দাবি করেন, ঘটনার দিন মঙ্গলবার তিনি রংপুরে কোনো কর্মসূচিতে অংশ নেননি।

 

তার এক অসুস্থ আত্মীয়ের সঙ্গে তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে সন্ধ্যা পর্যন্ত ছিলেন। ওই দিন রাতে তিনি বাংলাদেশ-স্পেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ আয়োজিত এক সভায় অংশ নেন। অথচ তাকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে।

 

রংপুর জেলা যুবদলের সভাপতি নাজমুল আলম নাজু বলেন, আমরা মঙ্গলবার পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে শাপলা চত্বর থেকে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে গ্রান্ড হোটেল মোড়ে পৌঁছালে পুলিশ সদস্যরা আমাদের বাধা দেন।

 

একপর্যায়ে উত্তেজিত নেতাকর্মীরা পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে মিছিল নিয়ে সামনের দিকে অগ্রসর হওয়ার চেষ্টা করেন। ওই সময় হাতাহাতি শুরু হলে কিছু বুঝে ওঠার আগেই পুলিশ সদস্যরা আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর বেধড়ক লাঠিচার্জ শুরু করেন। এতে আমাদের অন্তত ১৬-১৭ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

 


তিনি বলেন, পুলিশের হাতে অস্ত্র, তারাই আমাদেরকে মিছিলে বাধা দিলো। আমাদেরকে লাঠিচার্জ করলো। এখন তারাই আবার আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিলো। হামলা করে মামলা দিয়ে আমাদের আন্দোলনকে কোনোভাবেই দমানো যাবে না। মামলাটি সাজানো বলে দাবি করে অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহার এবং নেতাকর্মীদের হয়রানি না করারও অনুরোধ জানান এই যুবদল নেতা।

 

এদিকে পুলিশের দাবি- বিএনপির নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিলের আড়ালে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করেন। তারা পূর্বপরিকল্পনা থেকে পুলিশের ওপর হামলা চালান। দলীয় কার্যালয়ের ভেতরে আগে থেকে রাখা ইট-পাকটেল ছুড়ে মারেন। তখন তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করেন পুলিশ সদস্যরা। এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের হামলায় ছয় পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হন।

 

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলার বাদী হয়েছেন এসআই রফিকুল ইসলাম এবং মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এসআই সোহেল রানাকে। ঘটনার তথ্য-প্রমাণ পুলিশের কাছে রয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। 

এই বিভাগের আরো খবর