ব্রেকিং:
প্রকাশ্যে শাকিব-বুবলীর সন্তান শেহজাদ খান বীর বুড়িমারী স্থলবন্দর ৯ দিন বন্ধ থাকবে

শুক্রবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২   আশ্বিন ১৫ ১৪২৯   ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
গাইবান্ধায় ট্রাকচাপায় স্ত্রী নিহত, স্বামী আহত প্রকাশ্যে শাকিব-বুবলীর সন্তান শেহজাদ খান বীর বিশ্বকাপের প্রাইজমানি ঘোষণা, চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ১৬ কোটি টাকা দুর্গাপূজায় ভারতে যাচ্ছে ৩ হাজার মেট্রিক টন ইলিশ রংপুরের মানুষ আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে দেখে আমি খুবই আনন্দিত
৪৬৯

পাটগ্রামে কান ধরিয়ে উঠবস করার ঘটনায় থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২  

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় বাল্যবিয়ের অভিযোগ তুলে বর ও তার বাবাকে প্রকাশ্যে কান ধরিয়ে উঠবস কারানোর ভিডিও ভাইরাল করার অভিযোগ উঠেছে রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল (৪২) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে সম্মানহানীকর এ ঘটনার বিচার চেয়ে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ফজলুল হক। অভিযুক্ত রাকিবুল হাসান পাটগ্রাম উপজেলার সরকারেরহাট এলাকার মৃত নুরুল হক আশরাফীর ছেলে।

 

ভুক্তভোগী ফজলুল হক একই উপজেলার বাউরা ইউনিয়নের হোসেনবাদ এলাকার মৃত নুর ইসলামের ছেলে।

জানা গেছে, ভুক্তভোগী ফজরুল হকের ছেলে ফরিদুল ইসলামের সঙ্গে একই উপজেলার সরকারেরহাট এলাকার আজিজুল ইসলাম অলির মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়। শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিয়ের চুড়ান্ত দিনে কনের বয়স অপ্রাপ্ত হওয়ায় পরবর্তিতে প্রাপ্ত বয়স্ক হলে তাদের বিয়ে হবে মর্মে দুই পরিবারের মধ্যে আলোচনা হয়।

এদিকে বাল্যবিয়ে হচ্ছে এমন খবর শুনে স্থানীয় সরকারেরহাট এলাকার রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল ওই কনের বাড়িতে গিয়ে বরসহ সবাইকে আটক করেন। বাল্যবিয়ে না দেওয়া ও যৌতুক নেবেন না বলে বরপক্ষকে শপথ করান তিনি। এ সময় বর, বরের বাবা ও ঘটককে কান ধরিয়ে উঠবস করান সোহেল। সেই দৃশ্য তিনি নিজের ফোনেও ভিডিও করে রাখেন।

এর পর তাদের কান করিয়ে উঠবস করার ভিডিও ছড়িয়ে দিবেন বলে হুমকী দিয়ে ৩০ হাজার টাকা দাবি করেন সোহেল। সম্মান বাঁচাতে শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বাধ্য হয়ে সোহেলকে ৩০ হাজার টাকা দেন বরের বাবা। কিন্তু টাকা নেওয়ার পরেও তিনি সেই ভিডিওটি নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেন। পরে নেট দুনিয়ায় মুহুর্তেই সেটি ভাইরাল হয়ে যায়।

এ ঘটনায় বিচার চেয়ে রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেলকে অভিযুক্ত করে পাটগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বরের বাবা ফজলুল হক।

বাদি ফজলুল হক বলেন, ক্ষমতার জোরে আমাদের আটক করে সোহেল অনেক গালমন্দ করেছেন। এক পর্যয়ে তিনি সবার সামনে আমাদের কান ধরিয়ে উঠবস করিয়েছেন। পরে সেই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে টাকা নেন। এর পরেও তিনি সেটি ভাইরাল করে দেন। এখন সবাই ভিডিওটি দেখে আমাদের বাজে কথা বলছেন। লজ্জায় আমরা বাবা-ছেলে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলাম। বাধ্য হয়ে থানায় বিচার দিয়েছি।

 

রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল বলেন, ভিডিওটা আমার অগোচরে ফেসবুকে গেছে। তা আমি দ্রুত ডিলেক করি। আমি এ বিষয়ে কোন পক্ষের কাছে টাকা দাবী করিনি। ৩০ হাজার টাকা মেয়ে বিয়েন অনুষ্ঠানে খরচ হিসেবে ক্ষতি পূরন মাত্র।

 

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক এ ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরো খবর